ব্রিটেনে মুসলিম কমিউনিটির অন্যতমে নেতা এ কে এম আবদুস সালাম আর নেই

প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২

ব্রিটেনে মুসলিম কমিউনিটির অন্যতমে নেতা এ কে এম আবদুস সালাম আর নেই

বৃটেন তথা ইউরোপে ইসলামি আন্দোলনের বীর সিপাহসালার, দাওয়াতুল ইসলাম ইউকে এন্ড আয়ার এর প্রতিষ্ঠাতা আমির, বৃটেন জুড়ে বহু মসজিদ মাদ্রাসা সহ অনেক প্রতিষ্ঠান গড়ার কারিগর, বৃটেনে বাংলাদেশি কমিউনিটির বিখ্যাত ও সুপরিচিত ব্যক্তিত্ব সিলেটের কৃতিসন্তান একেএম আবদুস সালাম আর নেই।

দুনিয়ায় ইসলামের অপরিহার্য এক বিশাল দাওয়াতি মিশন সমাপ্ত করে চিরবিদায় হলেন তিনি। তিনি শুক্রবার রাতে লন্ডনের ওয়ালথাম স্টো এলাকায় তাঁর নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল হয়েছেন। ইন্নালিল্লাহী ওয়া ইন্না ইলাইহী রাজিউন।
মরহুম আবদুস সালাম এর পৈতৃক নিবাস বৃহত্তর বালাগঞ্জের ওসমানী নগর উপজেলার মুক্তারপুর গ্রামে। একদম শৈশবে তিনি বৃটেন পাড়ি জমান।

বৃটেনের বাংলাদেশি কমিউনিটির তিনি একজন প্রবীন মুরব্বি ও ইসলামি আন্দোলনের নেতা হিসেবে সুপরিচিত ছিলেন। তাঁর হাত ধরে ইউরোপে আধুনিক কালে ইসলাম এবং মুসলমানদের সামাজিক ও ধর্মীয় কর্মকান্ড
বিকশিত হয়ে উঠেছে।

একেএম আবদুস সালাম ইউরোপের অনৈসলামিক সমাজের বৈরী পরিবেশে মুসলমানদের মধ্যে কোরআনের সমাজ গড়ার এক বিরল সংগ্রাম চালিয়ে গেছেন জীবনভর। এজন্য তাঁকে অনেক কঠিন বাধা বিপত্তির মুখোমুখি হতে হয়েছে। এক্ষেত্রে মরহুমের সীমাহীন আত্মত্যাগ উত্তরসুরীদের অনুপ্রাণিত করবে নি:সন্দেহে। আবদুস সালাম এর ইন্তেকালের খবরে বৃটেন ও ইউরোপ জুড়ে বাংলাদেশি কমিউনিটির মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

প্রবীণ ইসলামী ব‍্যক্তিত্ব,দাওয়াতুল ইসলাম ইউকে এণ্ড আয়ারের প্রাক্তন আমীর, বহু মসজিদ, মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা, বৃটেনে ইসলামী আন্দোলনের নেতা আলহাজ্ব এ কে এম আব্দুস সালাম লণ্ডনের ওয়ালথাম স্টো এলাকার নিজ বাস ভবনে গতকাল শুক্রবার ইন্তেকাল করেছেন।

মরহুমের পৈত্রিক নিবাস ছিল ওসমানী নগর উপজেলার মুক্তারপুরে।

তিনি ২রা মে ১৯৩৫ সালে জন্ম গ্রহন করেন। মৃত্যুকালে মরহুমের বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। তিনি এক ছেলে ও দুই মেয়েসহ দেশ বিদেশ বহু আত্মীয় স্বজন এবং অনেক গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের বড় জামাত হচ্ছেন বিশিষ্ট আইনজীবি ও দারুল উম্মাহ মসজিদের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আহমেদ এ মালেক।

মরহুমের জানাজার নাভাজের সময় সুচি পরে জানানো হবে।